এমন একজন প্রতিমন্ত্রী পেয়েছিলাম যে নিজের তথ্যের সিকিউরিটি দিতে পারেননি!

তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ যার ক্ষমতা কতটুকু ছিল তা আমি বলার কোন দারকার নেই। সদ্য ভাইরাল হওয়া অডিও ফুটেজ, ভিডিও সহ যা যা ভাইরাল হয়েছে তাই প্রমান করে। তবে আশার কথা সবাই যে যার মত করে তা সংগ্রহ করে রেখেছিলো হয়ত কোনদিন কাজে আসবে।

হা তাই হয়েছে রেখে দেয়া তথ্য প্রমান সময়মত কাজে লাগিয়েছে তারা। মানুষ বছর থেকে বছর আগে ঘটে যাওয়া তথ্য সংগ্রহ করে রাখে যা সময়মত কাজে লাগায় তা অনেক দেখেছি। সুতরাং আজ নিজেকে অনেক বড় মনে না করে কাউকে আঘাত না করে আগামীর কথা ও ভাবতে হবে আগামীতে এখন আঘাত দিলে কি হবে সেইটা ত আমরা এমন একজন তথ্য প্রতিমন্ত্রী পেয়েছিলাম যে তিনি নিজের তথ্য ই নিরাপদে রাখতে

বা সিকিউরিটি দিতে পারেননি। মুল বিষয়ে যাবার আগে একটু বলি ক্ষমতা আর বাহাদুরি সবসময় থাকবেনা তার অতিত প্রমান না দিয়ে বলব তার বাস্তব প্রমান ডাক্তার মুরাদ। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তিনি সব সময় দলের নেতা কর্মীদের

এই কথা বলেন ক্ষমতা সবসময় থাকবেনা তাই বেশি বাড়াবাড়ি করবেননা এমন কিছু কথা বলে থাকেন। পাপিয়া,হেলেনা, কেসিনো ক্যান্ডে আটককৃত তারা সবাই ছিল বেশ ক্ষমতাশালী তাদের ক্ষমতা আজ কোথায়? যে মন্ত্রী নিজেকে নিজের তথ্য সংরক্ষন নিরাপদ রাখতে পারেননি তিনি দেশের তথ্যসম্পদ, তথ্য সংরক্ষণ ইত্যাদি কিভাবে করতেন?

আমরা এমন একজন তার মন্ত্রী পেয়েছিলাম তা আমাদের জন্য ছিল দুর্ভাগ্যের। মুরাদ মন্ত্রী ছিলেন তার চারপাশে সবাই ছিল আজ থেকে তাদেরকে আর ডাকলেও মিলবেনা। এতদিন যারা একটা পোগ্রামের তারিখ নেয়ার জন্য পিছনে পিছনে দৌড়াত ফুলের তুড়া নিয়ে হাঁতে তুলে দেয়ার জন্য লাইনে থাকতো তাদেরকে এখন আর খুঁজে পাওয়া যাবেনা। এইটায় নিয়ম। এ থেকে ও আমাদের শিক্ষা নেয়ার আছে। তথ্য মন্ত্রণালয়ঃ দেশের তথ্যসম্পদ উন্নয়ন, তথ্য সংরক্ষণ,

তথ্যের নিরাপদ সঞ্চালন, তথ্য অধিকার সংরক্ষণ, অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিতকরণসহ তথ্যসংশ্লিষ্ট বিবিধ আইন, বিধি-বিধান, প্রবিধান প্রণয়ন এবং বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে থাকে। এছাড়াও একটি বড় অংশজুড়ে রয়েছে ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট গণমাধ্যম সংক্রান্ত কার্যাবলি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *