Breaking News

যে অডিও ভাইরালের কারণে বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায়’কে গ্রেফতার করা হয়েছে (অডিও সহ)

হেফাজতের ডাকা হ’রতালে সহিংসতা সৃষ্টির প্ররোচণা দেওয়ার অভিযোগে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ বিএনপির সভাপতি নিপুণ রায়কে আটক করেছে র;্যাব।

সম্প্রতি একটি অডিও ক্লিপে নিপুণ বিএনপি নেতাদের যানবাহনে আ’গুন ধরানোর নির্দেশ দিচ্ছেন এমনটা শোনা যায়।ওই অডিওক্লিপে কেরানীগঞ্জের বিএনপি নেতা আরমানকে হেফাজতের ইস্যুকে কাজে

লাগিয়ে যানবাহনে আ’গুন ধরিয়ে দেওয়ার নির্দেশনা দিতে শোনা গেছে। এমনকি দাউদাউ করে জ্বলতে হবে এবং সেটি ভিডিও করে পাঠালে সেটি ‘জায়গামতো’ পাঠানোর কথাও বলেন নিপুণ রায়।

র‍্যাব সদর দফতর জানিয়েছে, নিপুণ রায় চৌধুরী রবিবার (২৮ মার্চ) হেফাজতের হ’রতালে তার দলীয় ক্যাডারদের গাড়ি পোড়ানোর নির্দেশনা দেন। নাশকতার নির্দেশদাতা হিসেবে রবিবার বিকেলে তাকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।

এর আগে নিপুণ রায়ের নির্দেশনা পালনকারী কেরানীগঞ্জের স্থানীয় বিএনপি নেতা আরমান, খোরশেদ ও শাহীনকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।নিপুণ রায় ও আরমানের ওই অডিওক্লিপের কথোপকথনে প্রথমে নিপুণ রায় ফোন করেন। তাতে শোনা গেছে-

নিপুণ রায় : আরমান ভাই, এলাকাতেই তো আছেন তাই না? কালকে তো হরতাল, একটা কিছু করা যাবে না?
আরমান : কী করতে হবে বলেন।
নিপুণ রায় : ধরায় দেন।
আরমান : ওকে ঠিক আছে।

নিপুণ রায় : বাস হোক যেটায় হোক, একদম পুরা, ফুল ধরবে, ফুল ধরবে। একটু দূর থেকে ভিডিও ছবি আমারে পাঠাবেন, অবশ্যই অবশ্যই। ঠিক আছে? আমি কিন্তু জায়গামতো পাঠাবো। হ্যাঁ, ওইটা মাথায় রাখবেন। ঠিক আছে, আজকেই আজকেই।

আরমান : ওকে।
নিপুণ রায় : বের হন।
আরমান : ইনশাল্লাহ।
নিপুণ রায় : এটা আমি দেখতে চাই। একদম দাউদাউ।’
এরপর আরমানের ফোন রিসিভ করেন নিপুণ রায়। সেখানে বলা হয়েছে-

আরমান : ভিডিও করতে পারিনি। ছবি পাঠিয়েছি। লীগের লোকজন ঘেরা। পুলিশ ঘিরে রেখেছে।
নিপুণ রায় : ওকে, সরে দাঁড়ান।
আরমান : সরে গেছি গা।
নিপুণ রায় : হোয়াটসঅ্যাপে পাঠান।
আরমান : হুম, হোয়াটসঅ্যাপেই পাঠাইছি।

 সেই ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন!

About jannatul ferdous

Check Also

মন্ত্রী ভুয়া লকডাউন দিছে-মানুষ খাবে কি ?লাইভ টেলিকাস্টে পথ শিশু

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি বিবেচনায় চলমান সর্বাত্মক লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এদিকে লকডাউন …