Breaking News

মুনিয়া ও আনভীরের আরেকটি গোপন কল রেকর্ড ফাঁস (অডিও সহ)

কলেজশিক্ষার্থী মোসারাত জাহান মুনিয়ার ম’য়নাত’দন্ত শেষ হওয়ার পর কে’টে গেছে ৫ দিন। তবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে রিপোর্ট এখনও হাতে পায়নি পুলিশ।

তবে এ ঘটনার পর মুনিয়া ও আনভীরের আরেকটি ফোনালাপ ফাঁ’স হয়েছে। দ্বিতীয় ফোনালাপেও টাকা চু’রির প্রসঙ্গ উঠেছে। এবং অন্যপাশ থেকে ওই ত’রুণীকে বারংবার অকথ্য ভা’ষায় গা’লাগা’লি করা হয়।

যদিও অডিওক্লিপটিতে কথা বলা দুইজনের পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে অডিওক্লিপটি ইতোমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপকহারে ভাইরাল হয়েছে।

এর আগে প্রথমে ভাইরাল ফোনালাপটিতে, এক ব্যক্তি এবং এক না’রীর কথোপকথন শোনা যায়। সেই কথোপকথনে ৫০ লাখ টাকার কথা উঠে আসে। তবে এই টাকার উৎস নিয়ে জনমনে প্রশ্ন উঠছে।

এর আগে জানাগেছে মুনিয়ার বোন ও খালাত ভাই যখন গুলশানে পৌঁছান তখন মুনিয়ার ফ্ল্যাটটির তালা ব’ন্ধ পাওয়া যায়। ওই বাসার তালাটি ছিল অটোলক যা ভেতর ও বাইরে থেকে চাবি দিয়ে খোলা যায়। সাধারণত এ ধরনের জাপানি তালার চারটি চাবি থাকে।

মাস্টার কি (চাবি) থাকে বাসার দায়িত্বে থাকা ম্যানেজার বা অন্য কারোর কাছে। এই চাবিতেই ঘুরপাক খাচ্ছে মুনিয়ার মৃ’ত্যু র’হস্য। মুনিয়ার পরিবারের বরাত দিয়ে জানা যায়, ওইদিন বাসার দায়িত্বরতরা একটি চাবি দিয়ে তালা খোলার চেষ্টা করেন, কিন্তু তালাটি খুলতে পারেননি।পরবর্তীতে তালাটি ভা’ঙতে হয়। এত বিলাসবহুল একটি বাসার তালা কেন ভা’ঙতে হলো- তা নিয়ে সংশয়ের সৃ’ষ্টি হয়েছে। তাহলে মালিকপক্ষের কাছে থাকা চাবিটি কোথায় ছিল? তাছাড়া পুলিশের জ’ব্দকৃত জিনিসপত্রের কোথাও চাবির কথা উল্লেখ ছিল না।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাসুদ সালাউদ্দিন মনে করেন, ‘এটা একটি হ’ত্যাকা’ণ্ড। বাসার একটি চাবি আনভীরের কাছে থাকার কথা, যেহেতু সে নিয়মিত ওই বাসায় যাতায়াত করত। আর দুটি চাবি মুনিয়া বা দুটির একটি মুনিয়ার বোনের কাছে থাকার কথা।তাহলে বাকি চাবিটি কি কৌশলে খু’নিদের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়েছিল- তা বিশ্লেষণের দা’বি রাখে। যুক্তি হিসেবে তিনি বলেন, ‘পুলিশ বলছে, দুইদিন ধ’রে মুনিয়ার বাসায় আনভীরের যাতায়াত ছিল না। আনভীর ছাড়া তার পরিবারের অন্য কেউ তো হ’ত্যাকা’ণ্ড ঘ’টাতে পারে।আর এটা যদি বাসার মালিকপক্ষের দায়িত্বরত কারোর সাথে আপস করে হয়, তাহলে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ম্যানুপলেট করে গায়েব করা কোনো বিষয় নয়।

এমনকি সিসি ক্যামেরা ফাঁ’কি দিয়ে কীভাবে বাসায় প্র’বেশ করতে হয়, তার সবটুকুই ওদের জানা। আর এর আগে যাতায়াত ছিল আনভীরের।মুনিয়ার বোনের করা মা’মলার এজাহার অনুসারে জানা যায়, আনভীরের মা ও পিয়াসা নামে এক না’রী দুইবার মুনিয়াকে হ’ত্যার হু’মকি দিয়েছে। মুনিয়া মা’রা যাওয়ার আগেও বোনের কাছে হ’ত্যার সম্ভাবনা নিয়ে বলে, ও (আনভীর) আমাকে না মা’রলেও ওর মা আমাকে হ’ত্যা করতে পারে।মুনিয়ার মৃ’ত্যুর পরও কেন তাদের জি’জ্ঞাসাবা’দ কিংবা আ’টক করা হলো না, তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তী’ব্র সমালোচনার ঝড় বইছে। আ’ইনজীবী মাসুদ সালাউদ্দিন দাবি করেন, এ মৃ’ত্যুটি আনভীরের পরিবার পে’শাদার খু’নি দ্বারা ঘ’টিয়েছে। প্রত্যক্ষভাবে খু’নো খু’নিতে যাওয়ার মতো পরিবার বসুন্ধরা গ্রুপের কেউ নয়।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

About staff reporter

Check Also

শনিবার থেকে দিনে ফেরি চলাচল বন্ধ

করোনা বিস্তার রোধে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক শনিবার (৮ মে) থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ও শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে দিনের …