Breaking News

মসজিদের লাউডস্পিকার ব্যবহারে বিধি-নি’ষেধ

মসজিদের লাউডস্পিকার ব্যবহারে বিধি-নি’ষেধ জারি করেছে কর্নাটক প্রদেশের ওয়াকফ বোর্ড। এক বিবৃতিতে রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত আজানের সময় প্রদেশটির মসজিদ ও দরগাহে লাউড স্পিকার ব্যবহার করা যাবে না বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ইন্ডিয়া টুডের খবরে বলা হয়, শব্দদূ’ষণ প্রতিরোধে লাউডস্পিকারের ব্যবহার নি’ষিদ্ধ করতে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়াকফ বোর্ড। আর দিনের বেলা লাউডস্পিকার ব্যবহারে নির্ধারিত নিয়ম-নীতি মেনে চলতে হবে।

খবরে আরো বলা হয়, যেকোনো হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও আদালতের এক শ মিটারের ভেতর পুরো স্থানকে ‘সাইলেন্স জোন’ বা ‘নীরব স্থান’ হিসেবে নির্ধারণ করা হয়।

এ স্থানে উচ্চ আওয়াজে শব্দ করলে তার বি’রুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বি’বৃতিতে বলা হয়েছে, বিভিন্ন মসজিদ ও দরগাহে ব্যবহৃত জেনারেটর মেশিন, লাউডিস্পিকারের বিকট শব্দ মানুষের স্বাস্থ্য এবং মানসিকতার ওপর বেশ ক্ষ’তিকারক প্রভাব ফেলছে।

দেশের বিভিন্ন স্থানের মসজিদে লাউডস্পিকার ব্যবহারের বিয়ষটি বিভিন্ন সময় দেশের আদালতে উত্থাপিত হয়েছে। অবশ্য অনেক মসজিদের নীতিমালা অনুসরণের বিষয়টি খুবই উৎসাহব্যঞ্জক বলে উল্লেখ করা হয়।

তা ছাড়া বি’বৃতিতে টেকসই প্রাকৃতিক পরিবেশ সুরক্ষায় ইসলামের সর্বাধিক গুরুত্বের কথাও উল্লেখ করা হয়েছে।বি’বৃতিতে আরো বলা হয়েছে, শুধুমাত্র আজান ও গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণার ক্ষেত্রে লাউডস্পিকার ব্যবহারের অনুমোদন আছে। মৃ’ত্যু সংবাদ, চাঁদ দেখা,

জানাজা, জুমার নামাজ, ধর্মীয় অনুষ্ঠান, প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঘোষণাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তা ব্যবহার করা যেতে পারে।এ ছাড়াও বিবৃতিতে ধর্মীয় অঙ্গনে ভিক্ষবৃত্তিকে নিরুৎসাহিত করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জনহিতকর বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানানো হয়।

About jannatul ferdous

Check Also

এবার তৃতীয় বিয়ের দাবি মাওলানা মামুনুল হকের

হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি মাওলানা মামুনুল হক তৃতীয় বিয়ের দাবি …