Breaking News

তিনি ছিলেন মন্ত্রী , অর্থের অভাবে করেছিলেন পদত্যাগ

বর্তমান প্রজন্ম আমরা হয়ত অনেক কিছুই জানিনা আমরা ভাবি নেতা আর মন্ত্রী মানে সবাই এক সমান আসলে আমাদের ভুল ধারনা আজকে যার কথা বলছি তিনি হচ্ছেন ব্যারিস্টার এ.আর. ইউসুফ তিনি ছিলেন একজন আইনজীবী পরে

১৯৮৪ সাল ও ১৯৮৫ সালে এরশাদ সরকারের আমলে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় মন্ত্রী ও মহামান্য রাষ্ট্রপতির উপদেষ্টা হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেছিলেন তখন কোন প্রটোকল গ্রহণ করেন নি। তার সাথে দেখা যেতনা পুলিশ বা সরকারি গাড়ি।

তিনি অর্থের অভাবে মন্ত্রীত্বের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন। অর্থাৎ সেসময় একজন মন্ত্রীর যে বেতন ছিল তা তার পূর্বের একজন আইনজীবী হিসেবে যে আয় করতেন সে তুলনায় অনেক কম ছিল। যার ফলে তিনি মন্ত্রীত্বের পদ থেকে পদত্যাগ করে আইন পেশায় ফিরে যান।

মন্ত্রী থাকাকালে নিজের বাজার নিজে করে রিক্সায় করে বাসায় ফিরতেন। এমনকি একবার একটা ছাগল কিনেও তিনি নিজে রিক্সা করে বাড়ি ফিরছিলেন যা সাংবাদিকদের ক্যামেরায় ধরা পরে। তা ছিল তিনির নিত্যদিনের দৃশ্য।

ছাত্রজীবনে তিনি এ.টি.এম তাহা ও ফরমানুল্লাহ খান সহ ন্যাশনাল স্টুডেন্ট ফ্রন্ট (এন.এস.এফ) প্রতিষ্ঠা করেন। পরবর্তীতে গভর্নর মোনায়েম খান এসে ন্যাশনাল স্টুডেন্ট ফ্রন্ট (এনএসএফ) এর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেন আর নানাকে তার দল থেকে বাদ করে দেন। ১৯৬৫ সালে তিনি ইংল্যান্ড থেকে “ব্যারিস্টার এ্যাট ল” ডিগ্রী লাভ করেন।

ভারতের দিল্লী শহরের সম্ভ্রান্ত এক মুসলিম পরিবারে ১৯৩২ সালের ১লা জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেছিলেন ব্যারিস্টার এ.আর ইউসুফ। তিনি চিটাগাং এর বাসিন্দা। তার বাবার নাম জনাব কে.আর খাদেম। তিনি বৃটিশ শাসনামলে এসডিও ছিলেন। ২০০২ সালের ১১ জানুয়ারি শুক্রবার তিনি চির বিদায় নেন ইহ জগত থেকে।

About Tahsin Rahman

Check Also

অবিশ্বাস্য হলেও সত্য তিনি মন্ত্রী ছিলেন অর্থের অভাবে পদত্যাগ করেছিলেন

বর্তমান প্রজন্ম আমরা হয়ত অনেক কিছুই জানিনা আমরা ভাবি নেতা আর মন্ত্রী মানে সবাই এক …