Breaking News

আমি শেখ হাসিনার সৈনিক- আমরা কি ? পাপিয়া টাপিয়া বহুত দেখছি

দেশজুড়ে সর্বাত্মক লকডাউন চলাকালে রাজধানীতে পরিচয়পত্র দেখতে চাওয়ায় পুলিশ সদস্য ও ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে রীতিমতো তুলকালাম কা’ণ্ড করেছেন এক নারী চিকিৎসক। পুলিশ ও দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেট বার বার অনুরোধ করেও তার কাছ থেকে মুভমেন্ট পাস বা কোন মেডিকেলের চিকিৎসক পরিচয়পত্র বের করতে পারেননি।

ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায় ঐ ডাক্তার নিজেক একজন নেত্রী হিসেবে পরিচয় দিচ্ছেন। বলছেন আমি মুক্তিযুদ্ধার মেয়ে বির বিক্রম শওকত আলীর মেয়ে পাশে থাকা পুলিশ বলেন আমিও মুক্তিযোদ্ধার ছেলে। নারী বলেন আমি শেখ হাসিনার সৈনিক জবাবে ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ বলেন আমরা কিসের ?

আমরা কি বাহিরের লোক পাশে থেকে একজন বলেন ভাইসা আইছে। পাশে থেকে আবার বলেন বহুত পাপিয়া টাপিয়া বহুত ছিল ঐসব ও বহুত আছে ঐ গুলা আমরা দেখিয়া আসছি।

এই ভিডিও ভাইরাল হবার পর সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে কেউ বাহবা দিচ্ছেন ঐ নারীকে আবার কেউ দিচ্ছেন পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেটকে। অন্য দিকে হচ্ছে

ট্রল ঐ নারীর ছবি ও পুলিশের ছবি দিয়ে কেউ কেউ লিখছেন শেখ হাসিনার সৈনিককে অন্য সৈনিক ধরছে আবার কেউ বলছেন পাপিয়াকে ধরছে। উল্লেখ্য রোববার (১৮ এপ্রিল) দুপুরে এলিফ্যান্ড রোডে পুলিশ চেকপোস্টে ওই নারীর কাছে পরিচয়পত্র দেখতে চায় পুলিশ। এতে উত্তেজিত হয়ে উঠেন তিনি। ‘মন্ত্রীকে’ ফোন করেন তিনি। ফোনে তাকে হয়রানি করার কথা বলেই পুলিশ সদস্যের হাতে তার ফোন তুলে দেন কথা বলার জন্য।

ভাইরাল ভিডিওতে অনেকে কমেন্ট করে নিজেদের মতামত দিচ্ছেন কেউ কেউ বলছেন রমজান মাসে একজন নারীর সাথে এমন করা ঠিক হয়নি। আবার কেউ বলছেন পুলিশের দায়িত্ব পালনে সাথে একজন ম্যাজিস্ট্রেট ঐ নারী যেভাবে কথা বলেছেন আর মন্ত্রীকে ফোন লাগিয়ে কথা বলতে বলেছেন হয়তবা ঐ নারীর পাওয়ার আছে তবে তা কোন ভাবে ঠিক হয়নি। পুলিশের উচিত ছিল ঐ নারিকে আটক করা। আবার অনেকে বলছেন কিছুই হবেনা কারন মহিলার হাত আছে উপর দিকে।

About Tahsin Rahman

Check Also

শনিবার থেকে দিনে ফেরি চলাচল বন্ধ

করোনা বিস্তার রোধে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক শনিবার (৮ মে) থেকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া ও শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে দিনের …