ভারতে মাত্র ৯ সেকেন্ডে ভেঙে ফেলা হলো ৩২ তলা ভবন (ভিডিওসহ)

ভারতের নয়ডার সুপারটেকের টুইন টাওয়ারটি নয় সেকেন্ডেই গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সময় রোববার ( ২৮ আগস্ট) দুপুরে
ডিনামাইট দিয়ে একটি বোতাম চেপে বিতর্কিত বহুতল এই ভবন দুটি গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

নয়ডার এই বিতর্কিত বহুতল ভবন দুটির নাম অ্যাপেক্স এবং সিয়ানে। এগুলোর মধ্যে একটির উচ্চতা ১০৩ মিটার। দ্বিতীয়টির উচ্চতা ৯৭ মিটার।

বহুতল এই ভবনগুলো গুঁড়িয়ে দিতে হরিয়ানা থেকে ডিনামাইটসহ ৩ হাজার ৭০০ কেজি বিস্ফোরক আনা হয়। এই কাজ খরচ হচ্ছে ২০ কোটি রুপি।

উল্লেখ্য, দুটি টাওয়ারের মধ্যে ১৬ মিটার দূরত্ব থাকার কথা ছিল, অথচ নির্মাণ সংস্থা দূরত্ব রাখে মাত্র ৯ মিটার। আরও গুরুতর অভিযোগ ছিল নির্মাণ সংস্থার বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, সুপারটেক এমারেল্ড কোর্ট হাউজিং সোসাইটি ১৪ তলা অট্টালিকার অনুমোদন দেয়। কথার খেলাপ করে নির্মাণ সংস্থা। তারা দাবি করে, তাদের কাছে ৪০ তলা টাওয়ারের অনুমোদন রয়েছে।

যদিও তা মানতে চায়নি হাউজিং সোসাইটি। ২০১২ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্টে মামলা করে এমারেল্ড কোর্ট হাউজিং সোসাইটি। ২০১৪ সালে হাউজিং সোসাইটির পক্ষে রায় দেয় হাইকোর্ট। টুইন টাওয়ার ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেন বিচারপতিরা। পরে সুপ্রিম কোর্টও একই রায় দেয়।

রোববারের ধ্বংসযজ্ঞে বিপদ এড়াতে একাধিক পদক্ষেপ করেছিল নয়ডা প্রশাসন। এদিক সকাল থেকে ভবন সংলগ্ন এলাকা থেকে সমস্ত বাসিন্দাকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হয়। আজ বিস্ফোরণের আগপর্যন্ত ২টি টাওয়ারের ১টিতে ৩২ তলা এবং আরেকটিতে ২৯টি তলা ছিল

সূত্র: এনডিটিভি
ভিডিওটি দেখতে লিংকে আসুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.