দীর্ঘদিন পর হ’ত্যা মামলায় মাস্টারমাইন্ড দুই আসামি যেভাবে আটক হলো

রাজধানীর শাহজাহানপুরে আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম টিপু ও কলেজছাত্রী প্রীতি হ’ত্যার মামলায় আরও দুই আসামিকে গ্রে’ফতার করেছে ঢাকা মহানগর গো’য়েন্দা পুলিশ।

রোববার (৩১ জুলাই) রাত সাড়ে ১১টার দিকে মতিঝিল এলাকা থেকে তাদের গ্রে’ফতার করা হয়। গোয়েন্দা মতিঝিল বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মো. রফিকুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতার দুইজন হলেন- টিপু হ’ত্যার মাস্টারমাইন্ড সোহেল শাহরিয়ার ওরফে শর্টগান সোহেল ও হ’ত্যায় ব্যবহৃত অ’ সরবরাহকারী মারুফ রেজা সাগর।

ডিবি সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতার এড়াতে দেশ ছাড়তে চেয়েছিলেন সোহেল ও সাগর। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পূর্ব প্রস্তুতির কারণে সে সুযোগ তারা পাননি। কানাডায় যাওয়ার পরিকল্পনার কথা জেনেই দিনভর নজরদারিতে রাখা হয় তাদের।

এর আগে এ ঘটনার সঙ্গে যুক্ত আরও চারজনকে রাজধানীর মতিঝিল এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন- জাতীয় পার্টি নেতা জুবের আলম খান রবিন, আওয়ামী লীগ নেতা মাহবুবুর রহমান টিটু, আরিফুর রহমান সোহেল ও খায়রুল।

টিপু হ’ত্যার প্রধান সমন্বয়কারী সুমন শিকদার ওরফে কিলার মুসার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তাদের গ্রে’ফতার করা হয়। এ হ’ত্যা মামলায় আকাশ ওরফে শুটার মাসুম ও হ’ত্যার অন্যতম পরিকল্পনাকারী সুমন শিকদার ওরফে মুসাসহ এখন পর্যন্ত ২২ জনকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে।

গত ২৪ মার্চ রাত সোয়া ১০টায় রাজধানীর শাহজাহানপুরে ইসলামী ব্যাংকের পাশে বাটার শো-রুমের সামনে আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম টিপুকে গু’লি করে হ’ত্যা করা হয়। এ সময় গাড়ির পাশে রিকশায় থাকা সামিয়া আফরান প্রীতি (১৯) নামে এক কলেজছাত্রীও নি’হত হন। এ ছাড়া টিপুর গাড়িচালক মুন্না গু’লিবিদ্ধ হন।

চাঞ্চল্যকর এ হ’ত্যাকা’ণ্ডের পর ওইদিন রাতেই শাহজাহানপুর থানায় নিহত টিপুর স্ত্রী ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সংরক্ষিত কাউন্সিলর ফারহানা ইসলাম ডলি বাদী হয়ে হ’ত্যা মা’মলা করেন। এতে অ’জ্ঞাতদের আসামি করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.