স্বামীর সঙ্গে রাগ করে ১৫ মাস বয়সী সন্তানকে পুকুরে ফেলে দিলেন মা

কুমিল্লায় স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে ১৫ মাস বয়সী সন্তান আরাফাত ইসলামকে পানিতে ডুবিয়ে মারলেন মা রোকসানা আক্তার (৩২)।

বুধবার (২০ জুলাই) সকালে চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শুভ রঞ্জন চাকমা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে মঙ্গলবার (১৯ জুলাই)

জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কাশিনগর ইউনিয়নের বারাইয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত রোকসানা আক্তার বারাইয়া গ্রামের আবদুল মান্নান মিয়ার মেয়ে। চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শুভ রঞ্জন চাকমা জানান, বেশ

কয়েক বছর আগে ইব্রাহিম হোসেন নামে বরিশালের এক যুবকের সঙ্গে রোকসানার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই বাপের বাড়িতে থাকত রোকসানা। তাদের

কোলজুড়ে আরাফাত ইসলাম নামের এক সন্তান আসার পর থেকেই গা ঢাকা দেয় ইব্রাহিম। সন্তান হওয়ার পর থেকে রোকসানাদের বাড়িতে একবারও আসেনি ইব্রাহিম। রোকসানা ও তার সন্তানের ভরণপোষণ না দিয়ে, উল্টো বাবার কাছ থেকে টাকা নিয়ে দেওয়ার জন্য চাপ দিয়ে মোবাইলে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করত।

তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার দুপুরেও ইব্রাহিম ফোন করে পূর্বের মতো গালিগালাজ করায় রাগ নিয়ন্ত্রণ না করতে পেরে, সন্তান আরাফাত ইসলামকে বাড়ির পুকুরে ছুড়ে মারেন রোকসানা। এ সময় স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুঁজি করে শিশুটিকে উদ্ধার করে। পরে স্থানীয় দরবেশ পাড়া বাজারে এক ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় শিশুটির মা রোকসানাকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে মামলা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.