একজন বাবার জন্য কন্যার এই যুদ্ধের জন্য

মহুয়া
আব্বদুল হাকিমঃ একজন বাবার জন্য কন্যার এই যুদ্ধের জন্য। ওর (মহুয়া হাজং) আপোষহীন মানসিকতার জন্য। বাবা-মা র প্রতি ওর যে শ্রদ্ধা সেই জন্য। একজন নাগরিক হিসেবে বাবার জন্য এভাবে আইনের আশ্রয় চাওয়ার জন্য। সার্জেন্ট মহুয়া বাবার জন্য পুলিশ কন্যার থানা থেকে আদালত পর্যন্ত লড়াইয়ের প্রশংসা করে একজন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী বলেছেন, তার প্রত্যাশা, মহুয়ার মত কন্যা সন্তান যেন বাংলার ঘরে ঘরে জন্ম হয়।

সোমবার পুলিশ কন্যা মহুয়া হাজংকে উদ্দেশ করে আইনজীবী জেড আই খান পান্না এ মন্তব্য করেন।

এখন আসি আসল কথায় গেছে বছরের ২ ডিসেম্বর বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ি সংলগ্ন ইউ লুপে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) সার্জেন্ট মহুয়া হাজংয়ের বাবা মনোরঞ্জন হাজং পা হারান।

মনোরঞ্জন মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন। তার বাইকে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় একটি প্রাইভেট কারের, যেটি চালাচ্ছিলেন একজন বিচারপতির ছেলে। দুর্ঘটনার পর সার্জেন্ট মহুয়া মামলা করতে গেলে থানা ফিরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ উঠে। পরে পুলিশ মামলা নিলেও আসামি হিসেবে ‘অজ্ঞাত পরিচয়’ বিষয়টি লিখতে বাধ্য হন তিনি।এদিকে মহুয়ার বাবার চিকিৎসায় ডিএমপির সাড়ে ৮ লাখ টাকার অনুদাননা করায় ফের উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন মেয়ে মহুয়া হাজং। তার আবেদনের ওপর শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ রুল জারি করে। আদালত জানতে চায়, মহুয়ার মামলায় কেন আসামির নাম নেই।

মহুয়াকে উদ্দেশ করে সিনিয়র আইনজীবী পান্না বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রতিটি ঘরে যেন মহুয়ার মত একটি করে কন্যা সন্তানের জন্ম দিক

কেন এ কথা বলছেন সিনিয়র এই আইনজীবীকে এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, বাবার জন্য কন্যার ( মেয়ের) এই যুদ্ধের জন্য। ওর (মহুয়া হাজং) আপোষহীন মানসিকতার জন্য। বাবা-মা র প্রতি ওর যে শ্রদ্ধা সেই জন্য। একজন নাগরিক হিসেবে বাবার জন্য এভাবে আইনের আশ্রয় চাওয়ার জন্য।

আমরা বলতে চাই সার্জেন্ট মহুয়া যা করেছেন তা ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিখা না থাকলেও কোটি মানুষের হৃদয়ে লিখা থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.