মিয়ানমার সীমান্তে মাইন বিস্ফোরণে পা উড়ে গেছে বাংলাদেশী যুবকের, বিস্তারিত…

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তে মাইন বিস্ফোরণে বাংলাদেশী এক যুবক গুরুতর আহত হয়েছেন। বিস্ফোরণে ওই যুবকের পা উড়ে গেছে।

শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে ৩৫ নম্বর পিলারের কাছে জিরো লাইনে এ ঘটনা ঘটে। আহত ওই যুবকের নাম অথাইন তঞ্চঙ্গ্যা (২২)।

জানা যায়, অথাইন তঞ্চঙ্গ্যা তুমব্রু হেডম্যান পাড়ার অংক্যথাইন তঞ্চঙ্গ্যার ছেলে। আহত যুবককে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর সীমান্তে লোকজনদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বিজিবি লোকজনদের সীমান্ত এলাকায় যেতে দিচ্ছে না।

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজন জানায়, দুপুরে অথাইন ও অপর এক যুবক জিরো লাইনের কাঁটাতারের বেড়া এলাকায় যান। সেখানে হঠাৎ মাইন বিস্ফোরণে অথাইনের বাম পা উড়ে যায়।

তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে কুতুপালং এমএসএফ হাসপাতালে পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। মাইন বিস্ফোরণে ওই এলাকায় একটি গরুও মারা যায়। তবে কী কারণে ওই দুই যুবক বিজিবির নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও জিরো লাইনে গিয়েছিলেন তা এখনো জানা যায়নি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাইক্ষ্যংছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা ফেরদৌস জানিয়েছেন, সীমান্তে নিরাপত্তা বাহিনী টহল তাকে উদ্ধার করেছে এবং স্থানীয়দের সীমান্ত এলাকায় যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

নিরাপত্তা বাহিনী ও স্থানীয়রা ধারণা করছেন মিয়ানমারের সেনাবাহিনী অথবা বিচ্ছিন্নতাবাদী আরাকান আর্মি সীমান্তে এসব মাইন পুঁতে রেখেছে।

উল্লেখ্য, গত এক মাসের বেশি সময় ধরে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি এলাকায় মিয়ানমার সীমান্তে ওই দেশের বিচ্ছিন্নতাবাদী আরাকান আর্মির সাথে সেনাবাহিনী ও সীমান্তরক্ষী বিজিপির মধ্যে লড়াইকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকটি মটারসেল ও গুলি এসে পড়েছে বাংলাদেশের মধ্যে। সীমান্তে নিরাপত্তা বাড়িয়েছে বর্ডার গার্ড বিজিবি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.