মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর গোলায় ১১ স্কুল শিক্ষার্থী নিহত

সংবাদ: মিয়ানমারের একটি স্কুলে সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার থেকে গোলাবর্ষণ করা হয়েছে। এতে ১১ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে।

আহত হয়েছে আরও ১৭ জন। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দেশটির স্থানীয় বাসিন্দারা এই তথ্য জানায়। ইউনিসেফের তথ্যমতে, এখন পর্যন্ত আরও ১৫ শিক্ষার্থী নিখোঁজ রয়েছে।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) মধ্য সাগেইং অঞ্চলের লেট ইয়েট কোনে গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। তবে সংঘর্ষের ঘটনা নিরপেক্ষভাবে যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স।

মিয়ানমারের সংবাদ মাধ্যম মিজিমা ও ইরাবতি জানায়, ওই গ্রামে বৌদ্ধদের আশ্রমে থাকা একটি স্কুলে সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার থেকে গোলাবর্ষণ করা হয়।

গুলিতে ঘটনাস্থলেই কিছু শিক্ষার্থী নিহত হয়, এছাড়া ওই গ্রামে যখন সেনারা প্রবেশ করে তখন বাকিরা মারা যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই বাসিন্দা জানান,

পরবর্তীতে শিশুদের লাশ দেশটির সেনাবাহিনী সেখান থেকে ১১ কিলোমিটার দূরে নিয়ে যায় এবং কবর দেয়। তবে এক বিবৃতিতে দেশটির সেনাবাহিনী বলেছে,

সন্ত্রাসীরা আশ্রমে লুকিয়ে ছিল এবং গ্রামটিকে অস্ত্র চালানের পথ হিসেবে ব্যবহার করা হতো। এরপর নিরাপত্তা বাহিনীকে হেলিকপ্টারে করে সেখানে পাঠানো হয় এবং তারা অভিযানে যায়। সেখানে গিয়ে তারা সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হয় এবং পালটা জবাব দেয়। সূত্র: ইরাবতি, ইউনিসেফ ডট ওআরজি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.