ছিনতাইকালে ধরা পড়লো পুলিশ ও আইনজীবী, অতঃপর……

গাজীপুরে পথচারীদের ভয় দেখিয়ে ও মারধর করে ছিনতাইকালে হাতেনাতে ধরা পড়েছেন পুলিশের এক কনস্টেবল ও শিক্ষানবিশ আইনজীবী। গত রোববার রাত ৯টার দিকে মহানগরীর নলজানী এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ সোমবার তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা করেছেন ছিনতাইয়ের শিকার রিকশাচালক বাচ্চু মণ্ডল (২৮)। সেই মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

পুলিশ কনস্টেবল ও শিক্ষানবিশ আইনজীবীর কাছ থেকে ছিনতাই করা নগদ টাকা উদ্ধার করেছে বাসন থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া দুজন হলেন টাঙ্গাইলের কালিহাতি থানার চুনুটিয়া গ্রামের মনির হোসেন তালুকদার (২৮) ও একই জেলার দেলদুয়ার থানার গড়াসিন এলাকার সজীব সরকার (২৭)।

পুলিশ কনস্টেবল মনির হোসেন গাজীপুরে প্রেষণে এনএসআইতে কর্মরত এবং সজীব গাজীপুর আদালতের শিক্ষানবিশ আইনজীবী। তারা গাজীপুর শহরের একই এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন।

বাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মালেক খসরু খান জানান, গতকাল রোববার রাত ৯টার দিকে মহানগরীর নলজানী এলাকায় চান্দনা চৌরাস্তা-জয়দেবপুর সড়কে একটি রিকশার গতিরোধ করেন মনির ও সজীব।

রিকশাটি থামানো মাত্রই তারা নিজেদের পুলিশ পরিচয় দিয়ে চালকের কাছে অবৈধ জিনিস থাকার কথা বলে গ্রেপ্তারের ভয় দেখিয়ে চড় থাপ্পড় মেরে পকেট থেকে ৬১০ টাকা ছিনিয়ে নেন।

এ সময় রিকশাচালকের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে মনির ও সজীবকে আটক করে। এ ঘটনার কিছুক্ষণ আগে তারা একই কৌশলে শাহীন নামে অপর এক পথচারীর কাছ থেকে তিন হাজার টাকা ছিনিয়ে নেন।

খবর পেয়ে বাসন থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের দুজনকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেন। এর আগেও বিভিন্ন সময়ে তারা আরও ছিনতাই করেছে বলে জানিয়েছে। এ সময় তাদের দুজনের কাছ থেকে ছিনতাই করা তিন হাজার ৬১০ টাকা উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় রিকশাচালক বাচ্চু মণ্ডল বাদী হয়ে আজ বাসন থানায় তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা করেছেন। তাদের তিন দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.