ছাত্রলীগ পিটিয়ে ভাইরাল পুলিশ সদস্যর পরিচয় জানা গেছে

শোক দিবসে ছাত্রলীগকে লাঠিপেটার ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছেন এক পুলিশ সদস্য।

তার নাম মো. মুসা। তিনি বরগুনা জেলা পুলিশের নায়েব ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহররম আলীর দেহরক্ষী হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

জানা যায়, জাতীয় শোক দিবসে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে ফেরার সময়

বরগুনা শিল্পকলা একাডেমির সামনে পৌঁছালে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত কয়েকটি গ্রুপ তাদের ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় পুলিশের একটি গাড়িতে ভাঙচুর করা হয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গণহারে ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীদের ওপর লাঠিপেটা করে। এ সময় জেলা পুলিশের সদস্য মুসা শিল্পকলা একাডেমির গেটে

দাঁড়িয়ে অডিটোরিয়াম থেকে বের হওয়া নেতাকর্মীদের লাগাতার পেটাতে থাকেন। কয়েক ঘণ্টার মধ্যে মুসার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তুমুল ভাইরাল হয়।

অনেকেই তার পেটানোর দৃশ্যটুকু নিয়ে ক্রিকেট-ফুটবল খেলার মিউজিক যুক্ত করে বিভিন্ন ট্রল পেজে শেয়ার করছেন।

আবার অনেকে ভিডিওটি শেয়ার করে নামকরা ব্যাটসম্যানদের সঙ্গে তুলনা করছেন। তবে এ বিষয়ে ভাইরাল পুলিশ সদস্যের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জেলা পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, সংবাদে দেখেছি মুসাকে নাকি বদলি করা হয়েছে। তবে এ সংক্রান্ত কোনো চিঠি আমরা এখনও পাইনি।

সুত্রঃ ঢাকাপোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.