মৃত্যুর পরেও ৩ নম্বর আসামি শাওন -
Friday , 23 September 2022 | [bangla_date]

মৃত্যুর পরেও ৩ নম্বর আসামি শাওন

প্রতিবেদক
rongon
September 23, 2022 9:19 pm

মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুরে বিএনপি ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার সদর থানায় দুটি মামলা হয়।

এর এক মামলার তিন নম্বর আসামি যুবদলনেতা নিহত শহিদুল ইসলাম শাওন। যিনি সংঘর্ষের মধ্যে গুলিতে আহত হয়ে বুধবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

মামলাটি করেছেন পঞ্চসার ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সদস্য আব্দুল মালেক। অন্য মামলাটির বাদি সদর থানার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ মাঈনউদ্দিন।

এদিকে মুন্সীগঞ্জ দৈনিক খবরপত্র পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি মো: হুমায়ুন কবির দীর্ঘ ১৫ দিন ধরে অসুস্থ। হাতের আঙ্গুল ভেঙে যাওয়ায় ব্যান্ডেজ করা। তিনি ঘটনার দিন সংবাদ সংগ্রহ করতেও মুক্তারপুর ঘটনাস্থলে যেতে পারেননি। কিন্তু পুলিশ ওই সাংবাদিককেও আসামি করেছেন।

বিএনপির নেতাকর্মীরা মামলার এজহারের নকল তুলে হুমায়ুন কবিরের নাম দেখতে পেয়ে আশ্চর্য হয়ে হুমায়ুন কবিরকে জানিয়েছেন যে তিনি এই মামলার ৭৮ নম্বর আসামি। বিষয়টি সাংবাদিক মহলেও সমালোচনার ঝড় তুলেছে। এসআই মাইন উদ্দিন এই সাংবাদিকের নামটিও মামলায় জুড়ে দিয়েছেন।

হুমায়ুন কবির পাঁচঘড়িয়াকান্দির আফাজ উদ্দিনের ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার শ্রমিক লীগের মামলায় মৃত শাওন ছাড়াও ৫২ জনের নাম উল্লেখ করা হয়। এছাড়া আরো ১৫০ থেকে ২০০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল বাসার বলেন, ‘মামলায় দু’জন আসামি আটক রয়েছে। এর চেয়ে বেশি এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়। তবে মামলাটির নিরপেক্ষ তদন্ত করা হবে।’

নিহত শাওনকে কেন মামলার আসামি করা হয়েছে জানতে চাইলে এসআই আবুল বাসার কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

শুক্রবার বিকেলে মোবাইল ফোনে শ্রমিক লীগ সদস্য আব্দুল মালেক সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘আমাদের মুক্তারপুরের অফিস ভাঙচুর করায় ও আমার পোলাপান মারধর করায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি।’

উল্লেখ্য, মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর পুরনো ফেরিঘাট এলাকায় পুলিশ ও বিএনপির সংঘর্ষের ঘটনায় যুবদলনেতা শাওন গতকাল রাত পৌনে ৯টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

শাওন মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মিরকাদিম পৌরসভার মুরমা এলাকার সোয়াব আলীর ছেলে। পেশায় ইজিবাইকচালক শাওনের আট মাস বয়সী এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

সর্বশেষ - রাজনীতি