বরগুনার এএসপি’র বদলির সিদ্ধান্ত মানে না কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ

বরগুনায় ছাত্রলীগের শোক সভায় লাঠিচার্জ করা পুলিশকে বদলির সিদ্ধান্ত মানে না ছাত্রলীগ। তাকে চাকুরিচ্যুত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতারা।

সম্প্রতি বুয়েটে শোক সভার বিরোধিতা ও বরগুনায় শোক দিবসের সভায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উপর বেআইনিভাবে লাঠিচার্জের প্রতিবাদে মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতারা।

এ সময় বক্তারা লাঠিচার্জ করা পুলিশ অফিসারের পারিবারিক ইতিহাস ঘেটে কোনো জামাত-শিবিরের সংযোগ আছে কি না তা নিশ্চিত হবার দাবি জানান।

এছাড়া বুয়েটের ঘটনায় প্রকৃত চক্রান্তকারীদের পরিচয় বের করে আইনের আওতায় আনার দাবিও জানানো হয়। অবিলম্বে বুয়েট ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের বুয়েট শাখার কার্যক্রম শুরুর দাবিও জানান বক্তারা।

প্রতিবাদ সভায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতারা যেসব দাবি জানান-

১. বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি চালু করতে হবে।

২. শোক সভার বিরোধীতাকারীদের শনাক্ত করে বহিষ্কার করতে হবে, আইনের হাতে তুলে দিতে হবে

৩. বরগুনার পুলিশ কর্মকর্তারা স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের সদস্য কি না তা খতিয়ে দেখে আইনি পদক্ষেপ নিতে হবে।

৪. আহতদের চিকিৎসার খরচ বরগুনা জেলা পুলিশকে বহন করতে হবে।

৫. বরগুনার পুলিশ প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে পদত্যাগ করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.