জাতিসংঘের গুমের তালিকার ৭৬ জনের মধ্যে ১০ জনকে পাওয়া গেছে

বাংলাদেশে বিভিন্ন সময় গুম হওয়া ৭৬ জনের যে তালিকা দিয়েছে জাতিসংঘ তার মধ্যে ১০ জনের খোঁজ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

তিনি বলেছেন, নিখোঁজদের মধ্যে ২৮ জন দাগি আসামি এবং বাকিদের খোঁজ পাওয়ার চেষ্টা চলছে। মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) বিকেলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আন্তর্জাতিক গুম দিবস উপলক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রতিমন্ত্রী এসব তথ্য জানান।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানান, জাতিসংঘ যে ৭৬ জনের তালিকা দিয়েছে, সেই তালিকায় আজ থেকে ২০-২৫ বছর আগে গুম হওয়া ব্যক্তিরও নাম রয়েছে। আমরা যখন সরকারে ছিলাম না, সেই সময়ের নামও রয়েছে। সেখানে কল্পনা চাকমার নাম রয়েছে।

তিনি জানান, গুমের তালিকার ৭৬ জনের মধ্যে ১০ জনের খোঁজ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ২৮ জন দাগী আসামিও রয়েছে। তারাও বিভিন্ন জায়গায় লুকিয়ে থাকতে পারে।

আবার এর মধ্যে একটি মেয়ের নাম ছিল, যার মা অভিযোগ করেছিলেন, সে গুম হয়েছে। পরে দেখা গেল মেয়েটি পালিয়ে বিয়ে করেছে। শাপলা চত্ত্বরে হেফাজতের আন্দোলনের সময় নিখোঁজ হওয়া এমন ১০-১২ জন পরে ফিরে ফিরে এসেছে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল বাচেলেত ঢাকা সফরের সময় গুম হওয়া ব্যক্তিদের জন্য কোনো বিশেষ সংস্থা গঠনের দাবি জানাননি। তিনি এক্ষেত্রে একটি মেকানিজমের কথা বলেছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানান, বিএনপি ও তাদের নিয়োগ করা লবিস্টরা জাতিসংঘে মিথ্যা তথ্য দিয়েছিল। সরকার জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের কাছে বিষয়টি পরিষ্কার করেছে। জাতিসংঘের পরামর্শ অনুযায়ী স্বাধীন মানবাধিকার কমিশন গঠনের কথা ভাবছে সরকার। তবে সুশীল সমাজের কাউকে প্রধান করে তা করার সুযোগ নেই বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.