কর্মী না আসায় আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থগিত, জানা গেল কারণ

জামালপুর সদর উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে চার ভাগের এক ভাগ কর্মীও উপস্থিত ছিলেন না। ফলে কর্মী সংকটে তড়িঘড়ি করে স্থগিত করতে হয়েছে সম্মেলন।

বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘোড়াধাপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন শুরু হলে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, বুধবার (৭ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সম্মেলন শুরু হয়।

এ সময় চার ভাগের এক ভাগ কর্মীও উপস্থিত ছিলেন না। তবে কিছুক্ষণ পরই মঞ্চে ওঠেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরীসহ অন্যান্য নেতারা।

তারা সম্মেলনে কর্মী সংকট দেখে ক্ষুব্ধ হন। পরে মঞ্চ থেকে মাইক দিয়ে জামালপুর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট হাফিজুর রহমান স্বপন কর্মী-সমর্থকদের প্যান্ডেলের নিচে আসার জন্য বারবার আহ্বান জানালেও, কেউ তার কথায় সাড়া দেননি।

এ সময় সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ক্ষুব্ধ হয়ে বলেন, নিজেদের মধ্যে দ্বন্দ্ব থাকার কারণেই এই ঘোড়াধাপ ইউনিয়নটি ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছে। এই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকের ব্যর্থতার কারণেই আজ পরিণতি।

তিনি আরও বলেন, আপনারাই বলেন এই সভাপতি, সম্পাদকের কী নেতৃত্বে থাকা চলে, চলে না। পরে তিনি চলমান ঘোড়াধাপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে বর্তমান কমিটিও বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে সম্মেলনের তারিখ জানানো হবে বলে জানান।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ডা. এম এ মান্নান খান উদ্বোধনী বক্তব্যে বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের নির্দেশনায় কমিটি স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তিনি উপস্থিত ছিলেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.