আন্দোলনে নেই বিএনপির ফরহাদ, নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ

সারাদেশের মতো খাগড়াছড়িতেও সরকার বিরোধী আন্দোলন জোরদার হচ্ছে। আন্দোলন ছড়িয়ে পড়েছে গ্রামে-গঞ্জেও।

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হচ্ছে প্রত্যন্ত ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডগুলোতেও। তবে এসব কর্মসূচীতে নেই গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি দলীয় প্রার্ধী মো. শহিদুল আসলাম ভূইয়া ফরহাদ। এ নিয়ে ক্ষুব্দ বিএনপির নেতাকর্মীরা।

কেন্দ্রীয় বিএনপি ইতোমধ্যে সাবেক ৩’শ সংসদ সদস্য ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোয়নপ্রাপ্ত প্রার্থীদের আন্দোলন জোরদার করতে এলাকায় গিয়ে কর্মসূচীতে অংশ নিতে নির্দেশ দিয়েছেন।

সে নির্দেশনা খাগড়াছড়ি আসনে ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত একাদশ সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী মো. শহিদুল ইসলাম ভ‚ইয়া ফরহাদ এসব কর্মসূচীতে অনুপস্থিত। ফলে দলের মধ্যে নানা কানাঘোষা চলছে।

খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির নীতি নির্ধারণ মহল বলছে, তিনি ২০১৮ সালের নির্বাচনের পর থেকে কোন কর্মসূচীতে অংশ নিচ্ছে না।

ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে জেলা বিএনপির সকল ইউনিটের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা ডেকে কেন্দ্রীয় বিএনপির কাছে রেজুলেশন পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় নির্দেশের অনেক আগ থেকেই সরকার দলীয় হামলা-মামলা উপেক্ষা খাগড়াছড়িতে বিএনপির নেতাকর্মীরা স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে সকল কর্মসূচি পালন করছে।

তবে এসব কর্মসূচিতে নেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী মো. শহিদুল ইসলাম ভূইয়া ফরহাদ। তিনি আবার জেলা বিএনপির প্রথম যুগ্ম সম্পাদ পদেও ছিলেন।

দলীয় সূত্র বলছে, শহিদুল ইসলাম ভূইয়া ফরহাদ বিরুদ্ধে দলীয় সাংগঠনিক কর্মকান্ডে নিস্ত্রিয়তা, চাঁদাবাজি ও দলীয় শৃঙ্খলা বিরোধী নানা কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ এনে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী সভায় তাকে বহিষ্কার করে দ্বিতীয় যুগ্ম সাধারন সম্পাদককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এদিকে ভোলায় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আব্দুর রহিম ও ছাত্রদল নেতা নুরে আলম হ’ত্যাকাণ্ড, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি, বিদ্যুতের লোডশেডিং এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্দেশনায় খাগড়াছড়ি জেলায় আন্দোলন এখন গ্রামে-গঞ্জে ছড়িয়ে পড়েছে।

প্রতিদিন জেলার ৯টি উপজেলা,৩টি পৌরসভা ও ৩৮টি ইউনিয়নের কোথাও না কোথাও বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হচ্ছে। খাগড়াছড়ি জেলার বিভিন্ন পর্যায়ে নেতারা এসব কর্মসূচীতে অংশ নিচ্ছেন। কিন্ত এ সব কর্মসূচীতে নেই গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী মো. শহিদুল ইসলাম ভ‚ইয়া ফরহাদ।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত একদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলেন খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভ‚ইয়া। কিন্তু আইনী জটিলতায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে গেলে তারই বড় ভাইয়ের ছেলে মো. শহিদুল ইসলাম ভূইয়া ফরহাদ শেষ পর্যন্ত দলীয় প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

ওই নির্বাচনে দিনের ভোট রাতে গ্রহণ ও একাধিক ভোট কেন্দ্রে শতভাগ ভোট কাষ্টিং-এর ঘটনা ঘটে। কিন্তু নির্বাচনের পর থেকে তাকে আর মাঠে পাওয়া যায়নি এমন অভিযোগ বিএনপির নেতাকর্মীদের।

খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক এম এন আবছার বলেন, দলীয় কর্মকান্ডে নিষ্ক্রিয়তাসহ শৃঙ্খলা বিরোধী নানা অভিযোগে তাকে একবছর আগে জেলা বিএনপির কার্যনির্বাহী সভায় দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে কথা বলতে শহিদুল ইসলাম ভূইয়া ফরহাদের নাম্বারে যোগযোগ করা হলে তিনি ফোন না ধরায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

একটি সূত্র বলছে, সরকার বিএনপির একটি অংশকে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিতে চেষ্টা করছে। মো. শহিদুল ইসলাম ভূইয়া ফরহাদ সে অংশের একজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.